বিষয়: নজরুল সঙ্গীত
কালানুক্রমিক সংখ্যা: ৩৩
গান সংখ্যা: ২৩১৫
শিরোনাম:
জয় ভারতী শ্বেত শতদল বাসিনী
 

   রাগ: তিলককামোদ ও শুভাবতী। তাল: গীতাঙ্গী

জয় ভারতী শ্বেত শতদল বাসিনী,
বিষ্ণু-শরণ-চরণ আদি বাণী।
কণ্ঠ-লীনা বাজিছে বীণা,
বিশ্ব ঘু’রে গাহে সে সুরে জয় জয় বীণাপাণি॥
শুনি সে-সুর অন্ধ নভে
উদিল গ্রহ তারকা সবে,
মাতিল আলো-মহোৎসবে মা, বিশ্বরানী॥
আদি সৃজন-দিনে অন্ধ ভুবনে,
তোমার জ্যোতি আলো দিল মা নয়নে।
জ্ঞান-পদায়িনী হৃদয়ে আলো দিলে,
ধেয়ান-সুন্দর করিলে সব নিখিলে,
উর মা উর আঁধার-পুরে আলো দানি’॥

ভাবসন্ধান:
রচনাকাল ও স্থান: 
গানটির রচনাকাল সম্পর্কে সুনির্দিষ্টভাবে জানা যায় না। অলকা পত্রিকার '২ চৈত্র ১৩২৮‌ (বৃহস্পতিবার ১৬ মার্চ ১৯২২) সংখ্যায় প্রকাশিত হয়েছিল। ১৯৩০ খ্রিষ্টাব্দে আগষ্ট (শ্রাবণ ১৩৩৭) মাসে প্রকাশিত হয়েছিল 'প্রলয় শিখা' নামক কবিতা ও গানের গ্রন্থ। গ্রন্থটিতে এই গানটি প্রথম অন্তর্ভুক্ত হয়েছিল। এই  সময় নজরুলের বয়স ছিল ৩১ বৎসর মাস।